৮ নভেম্বর তফসিল ঘোষণার সিদ্ধান্ত

জাতীয় জাতীয় নির্বাচন

রোববার বিকালে ৩৯ তম কমিশন সভায় এই তারিখ চূড়ান্ত করা হয় বলে নির্বাচন কমিশনার শাহাদাত হোসেন চৌধুরী জানান।

কমিশন সভার পর এক ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, “আমরা ৮ নভেম্বর তফসিল ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ওইদিন অপরাহ্নে জাতির উদ্দেশে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার ভাষণের মাধ্যমে সংসদ নির্বাচনের বিস্তারিত তফসিল ঘোষণা করা হবে।”

সর্বশেষ দশম সংসদ নির্বাচনের তফসিলও ঘোষণা করা হয়েছিল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বেতার ও টেলিভিশনে জতির উদ্দেশ্যে সিইসির দেওয়া ভাষণে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে অন্য রাজনৈতিক দলগুলোর চলমান সংলাপ শেষ হওয়ার আগে তফসিল ঘোষণা না করতে নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ করেছিল কামাল হোসেনের জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

আর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন, তফসিল ঘোষণার সময় ঘনিয়ে আসায় ৭ নভেম্বরের পর আর কোনো সংলাপ তারা রাখতে চান না।

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে নির্বাচন কমিশনার শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, “৪ নভেম্বর আমাদের তফসিল দেওয়ার কথা ছিল। এখন সব কিছু বিবেচনা করে ৮ নভেম্বর তফসিল ঘোষণা করা হবে।”

ইভিএম ব্যবহারের বিষয়ে তিনি বলেন, “স্বল্প পরিসরে ইভিএম ব্যবহার করা হবে। এখনও কত সংখ্যক আসনে ব্যবহার করা হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি।”

অধ্যাদেশ জারির চার দিনের মাথায় রোববার ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) নিয়ে বিধিমালাও চূড়ান্ত করেছে নির্বাচন কমিশন। এখন আইন মন্ত্রণালয়ে ভেটিং শেষে তা গেজেট আকারে জারি করবে ইসি সচিবালয়।