স্ত্রীর ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে ঝুলছেন স্বামী, খাটে মৃত স্ত্রী

প্রচ্ছদ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে শয়নকক্ষে এক নবদম্পতির রহস্যজনক মৃত্যু ঘটেছে।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার ভালুকা পূর্বশা গ্রামে তাদের শয়নকক্ষ থেকে এ দম্পতির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কুমারখালী থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, নিহত এই দম্পতি হলেন- বিপুল কুমার রায় (৩২) এবং তার স্ত্রী সোহাগী রানী (২২)। বিপুল কুমার রায়ের বাড়ি ঝিনাইদহর শৈলকুপায় এবং সোহাগী রানী ভালুকা পূর্বশা গ্রামের ভরত মণ্ডলের মেয়ে। বিপুল রায় ঘরজামাই থাকতেন বলে জানা গেছে।

পরিবারের সদস্যরা জানান, মাত্র তিন মাস আগে এই দম্পতির বিয়ে হয়। বিয়ের পর বিপুল কুমার রায় শ্বশুরবাড়িতেই থাকতেন। প্রতিদিনের ন্যায় বৃহস্পতিবার রাতে খাবার খেয়ে তারা ঘুমাতে যান। সকালে ৮টা পর্যন্ত ঘরের দরজা না খোলায় পরিবারের লোকজন ডাকাডাকি করেন। কিন্তু তারা কোনো সাড়া না দেয়ায় পরিবারের লোকজন স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্পে সংবাদ দেয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঘরের দরজা ভেঙে স্বামীকে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় এবং স্ত্রীকে খাটের ওপর থেকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত জানান, ঘটনাস্থলে কুমারখালী থানার ওসি এবং অতিরিক্ত পুলিশ গেছে। আমরা জানার চেষ্টা করছি হত্যা না আত্মহত্যা।