সরকারি ওষুধ পাচারের সময় নার্স নেতা আটক

জাতীয়

সরকারি ওষুধ পাচারের সময় এক নার্স নেতাকে আটক করেছে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই। আটক নেতার নাম তপন কুমার বিশ্বাস (৪৫)।

মঙ্গলবার রাতে বিপুল পরিমাণ ওষুধসহ তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়। সিনিয়র স্টাফ নার্স তপন কুমার বিশ্বাস স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদ-স্বানাপ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ঢামেক বার্ন ইউনিট শাখার সভাপতি। তিনি বর্তমানে শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটে কর্মরত।

এনএসআই’র একটি সূত্র যুগান্তরকে জানায়, তাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য ছিল তপন কুমার বিশ্বাসসহ একটি চক্র সরকারি ওষুধ পাচারের সঙ্গে জড়িত। এ বিষয়ে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়। এ প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার রাত ৭টার দিকে শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটের পাশ থেকে বিপুল পরিমাণ সরকারি অ্যান্টিবায়োটিকসহ তপন কুমার সাহাকে আটক করা হয়। এ ওষুধের আনুমানিক মূল্য প্রায় ২৫ হাজার টাকা। পরে তাকে শাহবাগ থানায় হস্তান্তর করা হয়।

এ ব্যাপারে স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের কেন্দ্রীয় মহাসচিব ইকবাল হোসেন সবুজ যুগান্তরকে বলেন, সংগঠনের কোনো ইউনিটের কারও বিরুদ্ধে যদি কোনো অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া যায় তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তপন কুমার বিশ্বাস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সরকারি ওষুধসহ আটক হওয়ায় প্রচলিত আইনে তাকে কঠোর শাস্তি দেয়া হোক। আমাদের সংগঠনে কোনো চোর-প্রতারকের জায়গা নেই।

এদিকে শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. পার্থ শঙ্কর পাল বলেন, আটক হওয়া তপন কুমার বিশ্বাস এ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্বরত। তার বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তাছাড়া তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান যুগান্তরকে বলেন, সরকারি ওষুধসহ তপন কুমার সাহা নামের একজনকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এখনো আমরা কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি।