মুমিনুল ১০৮ রানে অপরাজিত আছেন।

খেলাধুলা

মধ্যাহ্নের আগেই ফিরে গেছেন ইমরুল কায়েস। এরপর মোহাম্মদ মিথুনও উইকেটে বেশিক্ষণ থিতু হতে পারেননি। মাত্র ২০ করেই সাজঘরে ফিরে গেছেন। এখন টেস্ট দলের নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও লিটল মাস্টার মুমিনুল উইকেটি রয়েছেন।  মুমিনুল ১০৮ রানে অপরাজিত আছেন।

দশটি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে এই রান করেন তিনি।

বিশুর বলে ক্যাচ আউট হয়ে ফিরে যান মিথুন।

ইমরুল-মুমিনুলের ব্যাটে ক্যারিবীয়দের প্রতিরোধের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশ।

হঠাৎই ছন্দপতন। ৪৪ রানেই ফিরে গেলেন ইমরুল। ইনিংসের শুরুতেই হোচট খায় বাংলাদেশ।

ব্যক্তিগত শূণ্য রানেই ফিরে যান ওপেনার সৌম্য সরকার।

এরপর শুরুর ধাক্কাটা ভালোভাবেই সামলে উঠেছে বাংলাদেশ।

ইমরুল কায়েস ও মুমিনুল হকের ব্যাটে উইন্ডিজ বোলারদের সামনে প্রতিরোধ গড়েছে স্বাগতিকরা। ৪৪ রানে ফিরেছেন ইমরুল কায়েস।

১ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর তারা ১০৫ রানের জুটি গড়েছেন।

ওয়ারিকেনের বলে এম্বরিচের হাতে ক্যাচ তুলে দেন ইমরুল কায়েস। এর আগে স্বাচ্ছন্দেই খেলছিলেন ইমরুল-মুমিনুল।

এক বছরেরও বেশি সময় পর টেস্ট খেলতে নেমেছিলেন সৌম্য সরকার। কিন্তু রানের খাতা না খুলেই বিদায় নেন এই ওপেনার। ইনিংসের তৃতীয় বলে আউট হন তিনি। মাত্র ২ বল খেলে শেন ডাউরিচকে পেছনে ক্যাচ তুলে দিয়ে কেমার রোচের শিকার হন সৌম্য।

এই ম্যাচ দিয়ে আবারও নেতৃত্বে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। শুরুতে কিছুটা সংশয় থাকলেও সাকিবের দলে ফেরা বাংলাদেশের জন্য স্বস্তিদায়ক।

চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে নাঈম হাসানের।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সবশেষ টেস্ট দল থেকে তিনটি পরিবর্তন এসেছে চট্টগ্রাম টেস্টে। লিটন দাস আগেই দল থেকে বাদ পড়ায় একাদশে আছেন সৌম্য সরকার। তাইজুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে স্পিন আক্রমণে আছেন সাকিব ও নাঈম। ১৭ বছর বয়সী নাঈম ৯৩তম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্ট ক্যাপ পেলেন।