বিনা ওয়ারেন্টে শিক্ষানবিশ আইনজীবী আটকের ঘটনায় এনএলসির নিন্দা; নি:শর্ত মুক্তির দাবী

জাতীয়

আঁধারে বিনা পরোয়ানায় চট্রগ্রাম আইনজীবী সমিতির শিক্ষানবিশ আইনজীবী জাহেদুল ইসলামকে পুলিশ কর্তৃক গ্রামের বাড়ী থেকে অসম্মানজনক ভাবে আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে নি:শর্ত মুক্তির দাবী এবং উক্ত বিষয়ে একটি বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে আটকের প্রকৃত রহস্য উদঘাটনের আহবান জানিয়েছে সর্বোচ্চ আদালতের আইনজীবীদের সংগঠন ন্যাশনাল লইয়ার্স কাউন্সিল(এনএলসির)চেয়ারম্যান এডভোকেট এস এম জুলফিকার আলী জুনু।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়,  অজানা’ অভিযোগে শিক্ষানবিশ আইনজীবীর বাড়িতে শেষ রাতে হানা দিল পুলিশ। ভীত-সন্ত্রস্ত সেই আইনজীবী ফেসবুকে পরপর স্ট্যাটাস দেওয়ার একপর্যায়ে লাইভে এসে চাইলেন সহকর্মীদের সহায়তা। সোমবার (১৮ মে) ভোর রাত তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ায় ঘটা এই ঘটনার শিকার চট্টগ্রামে কর্মরত শিক্ষানবিশ আইনজীবী জাহেদুল ইসলাম। চট্টগ্রাম আদালতের আইনজীবীরা বলছেন, ওয়ারেন্ট ছাড়া রাতে পুলিশ কারও বাড়িতে এভাবে যেতে পারে না।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, কুতুবদিয়ায় নিজের এলাকায় করোনাভাইরাস নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করতে গিয়ে শিক্ষানবিশ আইনজীবী জাহেদুল ইসলাম এলাকায় কিছু লোকের রোষানলে পড়েন। তারই প্রেক্ষিতে তাকে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়াই রাতে তার বাড়িতে হানা দেয় পুলিশ।

সোমবার (১৮ মে) ভোর রাত তিনটার দিকে ফেসবুক লাইভে ওই আইনজীবীকে বলতে শোনা যায়, ‘আপনারা আমার ছাদের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকেছেন কেন? এত রাতে আমি আপনাদের সাথে যাব না। আমি শিক্ষানবিশ আইনজীবী। আমি সকালে থানায় যাব। আমি আদেশ অমান্য করলে তবেই আপনারা আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েন। এখন সেহেরির সময়। আপনারা চলে যান। এখন আপনাদের সঙ্গে গেলে আমি জীবন নিয়ে অনিশ্চয়তা বোধ করছি।’