বিজয়ের গল্প :অপারেশন উলন পাওয়ার স্টেশন ১৯৭১

শিক্ষাঙ্গন সাহিত্য ও দর্শন


রামপুরা থানার আঁধারে ঢাকা ডিআইটি সড়ক থেকে রিকশা করে উলনের পথে রওনা হয়েছিলেন নীলু, গাজী এবং মতিন। ভয়হীন মনে উদ্দেশ্য একটাই-উলন বিদ্যুৎকেন্দ্র ধ্বংস করে পাক হানাদার বাহিনীকে পঙ্গু করে দেওয়া। বিদ্যুকেন্দ্র পাহারায় থাকা

রাইফেলধারী পুলিশ ও নিরাপত্তা প্রহরীরা কিছু বোঝার আগেই তাদের দিকে বন্দুক তাক করেন গাজী ও নীলু, বলেন, “চুপ! খোদার

কসম, একদম ঝাঁঝরা করে ফেলবো!” । কিছুক্ষণের মাঝেই ভেতরে থাকা সবকয়টি পুলিশ ও নিরাপত্তা-কর্মীদের তাঁরা বাধ্য

করলেন আত্মসমর্পণ করতে। এরপর লেগে গেলেন আসল মিশনে। অপারেটর রুমে ঢুকে ট্রান্সফর্মারের গায়ে বিস্ফোরক

লাগালেন গাজী, মতিন এবং আরও দুই সহযোদ্ধা। মিনিট কয়েক না পেরোতেই গোটা রামপুরা কাঁপিয়ে বিস্ফোরিত হলো

ট্রান্সফর্মার! কালো অন্ধকারে আকাশে ফণা তোলা আগুনের লেলিহান শিখা দেখে নিশ্চিত হলো গেরিলা বাহিনী, মিশন

সাকসেসফুল! ঢাকার একাংশ ডুবে গেলো গভীর অন্ধকারে, পঙ্গু হলো নরপিশাচ হানাদার বাহিনী!