প্রধানমন্ত্রীর নির্বাহী আদেশে ৬০ ভাগ বাড়িভাড়া মওকুফের আবেদন

জাতীয়

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশে চলমান লকডাউন পরিস্থিতি সরকার ঘোষিত চলমান সাধারণ ছুটির শুরু থেকেই ঢাকাসহ দেশের সব শহরের বাড়ি ভাড়া সম্পূর্ণ বা আংশিক মুকুফের আবেদন উঠেছে বারবার। এবার প্রতি মাসের বাড়িভাড়ার ৬০ শতাংশ কম নিতে বাড়ির মালিকদের প্রতি নির্বাহী আদেশ জারি করতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী।

রোববার (১৭ মে) প্রধানমন্ত্রী বরাবর এ আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এস এম জুলফিকার আলী জুনু।

আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, সারাদেশ সরকার ঘোষিত ছুটিতে লকডাউনে থাকায় মানবিক দিক বিবেচনায় আপনার নির্বাহী আদেশে প্রতিমাসের বাসাভাড়ার শতকরা ৬০ ভাগ মওকুফ করার আবেদন জানাচ্ছি।

আইনজীবীর করা আবেদনে আরও বলা হয়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি বাংলাদেশের প্রধান অভিভাবক। দেশের মানুষ আজ মারাত্মক সংকটে। করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন সরকারি সাধারণ ছুটি থাকায় মধ্যবিত্ত সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন জীবন-জীবিকা নির্বাহ কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।

বাড়িভাড়ার জন্য সমাজের অনেক ভদ্র পেশাজীবীদের বাড়িওয়ালা কর্তৃক প্রতিনিয়ত অপমানের শিকার হতে হচ্ছে। এর মধ্যে কুষ্টিয়ায় বাড়ি ভাড়া না দিতে পারায় এক নারীকে আগুন ধরিয়ে দেন বাড়িওয়ালার ছেলে। এদিকে আবার ঢাকায় বাড়ির মালিক তার ভাড়াটিয়াকে রাতের বেলায় বের করে দেন রাস্তায়। কবে দেশ ও জাতি এই করোনার মহামারি থেকে রক্ষা পাবে তা একমাত্র আল্লাহই জানেন। আমরা মধ্যবিত্ত পেশাজীবীরা নিজের অভাবের কথা লোক লজ্জায় কাউকে বলতেও পারি না, আবার কষ্টও সহ্য করা যাচ্ছে না।

অতএব দেশের প্রধান অভিভাবক হিসেবে আপনার নিকট আমাদের আবেদন করোনার এই ভয়াল পরিস্থিতিতে মানবিক দিক বিবেচনায় সাধারণ পেশাজীবীদের এপ্রিল মাস থেকে বাসাভাড়ার শতকরা ৬০ ভাগ মওকুফ করার জন্য সরকারের প্রধান হিসেবে আপনার নির্বাহী আদেশ প্রার্থনা করছি।