পাগলির সেই নবজাতককে দেখতে গেলেন ইউএনও

প্রচ্ছদ

নির্জন বালুমাঠে পাগলির সন্তান প্রসবের খবর প্রকাশের পর পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাশফাকুর রহমান সেই নবজাতক শিশু কন্যাকে দেখতে যান।

শুক্রবার দৈনিক যুগান্তরে ‘মা হলেন পাগলি! বাবা কে?’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে তা দেখে শনিবার রাত সাড়ে ৭টায় খালগোড়া বাজারের বাসিন্দা পারুল বেগমের বাড়িতে যান ইউএনও মো. মাশফাকুর রহমান।

সেখানে গিয়ে তাদের চিকিৎসা ও থাকা-খাওয়ার নিশ্চয়তার বিষয়ে খোঁজ নেন।

একইসঙ্গে ইউএনও ব্যক্তিগতভাবে শিশুটিকে নতুন পোশাক ও প্রয়োজনীয় সামগ্রীর পাশাপাশি দুই সপ্তাহের দুধ কেনার অর্থ প্রদান করেন।

এ সময় রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ ও রাঙ্গাবালী ইউপি চেয়ারম্যান সাইদুজ্জামান মামুন ইউএনওর সঙ্গে ছিলেন।

শুক্রবার ভোর রাতে উপজেলার খালগোড়া বাজারের নির্জন বালুর মাঠে মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারীর কন্যা সন্তান প্রসব হয়। তার আহাজারি শুনে স্থানীয় বাসিন্দা অহিদুল পল্লানের স্ত্রী পারুল বেগম তাদেরকে নিজের ঘরে নিয়ে যান। বর্তমানে মা-মেয়ে পারুল বেগমের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন।

এদিকে পাগলির সন্তান প্রসবের ঘটনা নিয়ে এলাকায় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে। শিশুটির পিতৃপরিচয় জানা নিয়ে সকলের মধ্যে কৌতুহল রয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, ‘শিশু সন্তান ও তার মায়ের দেখাশোনার জন্য আমি সমাজসেবা দফতরকে চিঠি পাঠিয়েছি। একইসঙ্গে তাদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার জন্য স্থানীয় কমিউনিটি ক্লিনিকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

বর্তমানে পারুল চাচ্ছেন, শিশুটিকে দত্তক নিতে। সে অনুযায়ী তাকে আইনি পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।’