চৌদ্দগ্রাম উপজেলা বিএনপির সম্মেলন স্থগিত | ভোটের মাধ্যমে নেতৃত্ব চায় না বিএনপি

জাতীয় রাজনীতি

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলা বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ছিল গতকাল মঙ্গলবার। দশ দিন আগে সম্মেলনের দিন নির্দিষ্ট করে জেলা বিএনপি। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মো. কামরুল হুদা যুগ্ম আহবায়ক ও সদস্য সচিবসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সাথে সভা করে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করে।
প্রত্যেক ইউনিয়নের কাউন্সিলর ও ডেলিগেট মঙ্গলবার ভোটের মাধ্যমে তাদের পছন্দের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করার কথা ছিল। কিন্তু সোমবার রাত ১২টার দিকে সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করেন উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মো. কামরুল হুদা। দীর্ঘ ৩ বছর পর আহবায়ক কমিটি দিয়ে সাংগঠনিক কার্যক্রম চলে।
গতকাল মঙ্গলবার সম্মেলনকে কেন্দ্র করে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছিল। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, সোমবার রাতে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজী আমিন উর রশীদ ইয়াছিন উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মো. কামরুল হুদাকে জানান সাধারণ সম্পাদক হিসেবে এ্যাডভোকেট হুমায়ন কবির পাটোয়ারীকে রেখে কমিটি ঘোষণা করার জন্য।
কিন্তু কামরুল হুদা জবাব দেন, ভোটের মাধ্যমে কাউন্সিলরগণ যাকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করেন তাতে আপত্তি নেই। ভোটের মাধ্যমে সকল নির্বাচনের দাবিতে বিএনপি বারবার আপত্তি জানালেও সম্মেলনের ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রম প্রস্তাব দেয়ায় কামরুল হুদা তা প্রত্যাখান করেন। একটি সূত্র জানিয়েছে, উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক সাজেদুর রহমান মোল্লা হিরণের নেতৃত্বে বিএনপির একটি গ্রুপ কেন্দ্রীয় বিএনপির দপ্তর সম্পাদকের নিকট একটি অভিযোগ দাখিল করে। এর আগে তিনি সাজেদুর রহমান মোল্লা হিরণকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করার জন্য প্রস্তাব দেয়া হয়। এ ব্যাপারে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজী আমিন উর রশীদ ইয়াছিন বলেন, আমাদের নিজস্ব কিছু সিদ্ধান্ত ছিল। ভেবেছিলাম সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন হবে। সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না হওয়ার কারণে সম্মেলনটি স্থগিত করা হয়েছে।
উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মো. কামরুল হুদা বলেন, প্রতিটি ইউনিয়নের কাউন্সিলের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক উপায়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত করা হয়েছে। তাদের ভোটের মাধ্যমে উপজেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হলে দলের জন্য ভালো হতো।

চৌদ্দগ্রাম জাতীয়তাবাদী প্রবাসী ফোরাম সভাপতি  হাসান রশীদ জানানচৌদ্দগ্রাম উপজেলা বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ে নেতাকর্মীদের একটাই দাবী কাউন্সিলরদের সরাসরি ভোটে নেতৃত্ব নির্বাচন করতে হবে । চাপিয়ে দেওয়া কোন কমিটি মানা হবে না।
তবে সম্মেলন স্থগিতের বিষয়ে জেলা নেতৃবৃন্দ আরও ভালো বলতে পারবেন বলে তিনি দাবি করেন।
উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক সাজেদুর রহমান মোল্লা হিরণ বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে আমাদের উভয় গ্রুপের সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে।