চেয়ারম্যানকে আটক করতে গিয়ে ওসি লাঞ্ছিত

প্রচ্ছদ

উপজেলায় ইউপি চেয়ারম্যানকে আটক করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন হালুয়াঘাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শ্যামল চন্দ্র ধরসহ বেশ কয়েকজন পুলিশ।

হালুয়াঘাট থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার জানান, উপজেলার স্বদেশী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিহাদ সিদ্দিকী ইরাদ একজন মাদকসেবী ও সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে হালুয়াঘাট থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

চাঁদাবাজি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকায় আমার নির্দেশে তাকে আটক করতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর চেয়ারম্যানের বাড়িতে পরিদর্শক শ্যামল চন্দ্র ধরের নেতৃত্বে কয়েকজন পুলিশ সদস্য যান।

ওসি জানান, এ সময় পুলিশের ব্যবহৃত একটি সিএনজি ভাঙচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে তারা। পুলিশ চেয়ারম্যান জিহাদ সিদ্দিকী ইরাদকে আটক করে থানায় নিয়ে তাৎক্ষণিক ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানায় প্রেরণ করে।

এ ব্যাপরে হালুয়াঘাট থানার এসআই মো. শামসুর রহমান সরকারি কাজে বাধা, পুলিশের ওপর হামলা ও সিএনজি ভাঙচুরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৩৮ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ৩০-৩৫ জন আসামি করে মামলা দায়ের করে।

তিনি জানান, গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে এজাহারভুক্ত আসামি ফরহাদ (৩৫), আবু কাউসার (৩৬) এবং রুমান খানকে (২২) আটক করে শুক্রবার সকালে আদালতে প্রেরণ করা হয়।