ঘূর্ণিঝড়ে মারা গেলেন ঘুমন্ত বৃদ্ধা

বাংলাদেশ

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলায় কালবৈশাখী ঝড়ে গাছ ভেঙে বসতঘরের ওপর পড়ে ঘুমন্ত অবস্থায় মারা গেছেন জয়েদ বানু (৭৯) নামের এক বৃদ্ধা।

সোমবার ভোরে উপজেলার কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নের হাত্রাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত জয়েদ বানু ওই গ্রামের মৃত আবদুল হেকিমের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার ভোরে বৃষ্টির সঙ্গে প্রচণ্ড বেগে ঘূর্ণিঝড় শুরু হয়। একপর্যায়ে একটি ঝাউগাছ ভেঙে ঘরের ওপর পড়ে গেলে ঘুমন্ত অবস্থায় মারা যান বৃদ্ধা জয়েদ বানু। এ সময় ঘরের বেড়ার টিন ভেঙে প্রাণে রক্ষা পায় জয়েদ বানুর দুই নাতি। পরে আত্মীয়-স্বজনরা গাছ কেটে জয়েদ বানুর মরদেহ উদ্ধার করেন।

kishorgonj

খবর পেয়ে করিমগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি মমিনুল ইসলাম ও কাদিরজঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফজলুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পাওয়া বৃদ্ধার দুই নাতি ইসমাইল ও তার ছোট ভাই অবি জানায়, তারা একটি ছোট্ট টিনের ঘরে দাদির সঙ্গে ঘুমিয়ে ছিল। ভোররাতে প্রচণ্ড ঝড়ের শব্দে তাদের ঘুম ভেঙে যায়। বৃষ্টি আর বাতাসের শব্দে ভয়ে তারা চিৎকার করছিল। এ সময় একটি গাছ টিনের চালে ভেঙে পড়ে। গাছ চাপায় আটকা পড়ে দাবি ও দুই নাতি। চোখের সামনে গাছ চাপা পড়ে মারা যান দাদি। তারা দুই ভাই ঘরের এক দিকের টিনের বেড়া ভেঙে ঘরের বাইরে আসে। নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পায় তারা। তবে এখনো তাদের চোখে-মুখে রয়েছে ভয়ের চাপ।

kishorgonj-1

করিমগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি মমিনুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। তবে বৃদ্ধার দুই নাতি অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যায়।